খুবই আকর্ষনীয় এবং সুস্বাদু একটি খাবারের নাম মোরগ মোসাল্লাম। ঈদ উৎসবে জামাই বাবাজী আপনার বাড়ী এল আর আপনি তাকে বিশেষ কিছু মনে রাখার মত খাবার খাওয়াবেন না, তা কি করে হয়। কিন্তু রেসিপি জানা না থাকার কারণে সুস্বাদু এই খাবারটি খাওয়ানর সুযোগ হারাচ্ছেন অনেকেই।এই রেসিপিটির মাধ্যমে আপনি ঘরের সাধারণ কড়াই বা হাড়িতেই তৈরি করতে পারবেন মুখরোচক মোরগ মোসাল্লাম।

মোরগ মোসাল্লাম

যা লাগবে :

মোরগ ৩টি (৩ কেজি),
আদাবাটা ৩ টেবিল চামচ,
রসুনবাটা দেড় টেবিল চামচ.
পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ,
বাদাম বাটা ২ টেবিল চামচ,
পোস্তদানা বাটা ২ টেবিল চামচ,
টক দই আধা কাপ,
মিষ্টি দই আধা কাপ,
পেঁয়াজকুচি আধা কাপ,
বেরেস্তা আধা কাপ,
কিশমিশ বাটা ২ টেবিল চামচ,
জায়ফল ও জয়ত্রীগুঁড়া আধা চা চামচ,
মাওয়া গুঁড়া আধা কাপ,
গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ,
গরম মশলা গুঁড়া ১ চা চামচ,
শাহী জিরা বাটা ২ চা চামচ,
লেবুর রস ২ চা চামচ,
টমেটো সস ২ টেবিল চামচ,
মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ,
চিনি ২ চা চামচ,
তেজপাতা ৩টি,
এলাচ , দারুচিনি , লবঙ্গ ৫টি করে
সেদ্ধ ডিম ৩টি (ভাঙা),
কাঁচামরিচ ৫-৬টি,
বাদামকুচি ২ টেবিল চামচ,
আস্ত কিশমিশ ২ টেবিল চামচ,
ক্রিম ২ টেবিল চামচ,
জাফরান সিকি চা চামচ (কেওড়া জলে ভিজানো),
কেওড়া জল ১ দেড় টেবিল চামচ,
লবণ পরিমাণমতো,
ঘি আধা কাপ,
তেল ১ কাপ।

যেভাবে করবেন :

মুরগির পেট পরিষ্কার করে ভালো করে ধুয়ে শুকনাভাবে মুছে নিন। এবার এর গায়ে আঁচড় কেটে পরিমাণমতো আদা-রসুন বাটা, লবণ ও মরিচগুঁড়া দিয়ে মেখে ১ ঘণ্টা মেরিনেট করুন। কড়াইতে তেল ও ঘি দিয়ে গরম হলে মুরগি হালকাভাবে ভেজে নিন।

এবার পেঁয়াজ কুচি দিয়ে তেজপাতা ও আস্ত গরম মশলার ফোড়ন দিন। এবার দই ও সব বাটা মশলা দিয়ে মশলা কষিয়ে নিন ভালো করে। তারপর মুরগি দিয়ে নেড়েচেড়ে ৩ থেকে ৪ মিনিট পর লবণ ও ২ কাপ গরম পানি দিয়ে ঢেকে দিন।

মুরগি সেদ্ধ হয়ে গেলে প্রায় শুকিয়ে এলে ডিম, মাওয়া, টমেটো সস, সব গুঁড়া মশলা, বেরেস্তা, লেবুর রস, চিনি দিয়ে নেড়েচেড়ে আবার ঢেকে দিন মৃদু আঁচে। কিছুক্ষণ পর কেওড়াজলে ভেজানো জাফরান, কাঁচামরিচ, অর্ধেক বাদামকুচি ও কিশমিশ দিয়ে ৪-৫ মিনিট পর চুলা বন্ধ করে দিন।

এবার পরিবেশন পাত্রে রেখে মুরগির পেটের ভেতর ডিম ও মশলা রেখে উপরে বেরেস্তা, পেস্তাকুচি ও কিশমিশ দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।