মুখে অতিরিক্ত ছোট ছোট তিল হওয়া স্কিন ক্যান্সারের পূর্ব লক্ষণ। আপনি একজন ত্বক বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে পারেন। তবে ভয়ের কিছু নেই । অতিরিক্ত এই তিলের দাগ কিছু প্রাকৃতিক উপায়েই কমানো যেতে পারে। এর জন্য আপনি গরম পানিতে আটার পেস্ট বানিয়ে মুখে নিয়মিত লাগাতে পারেন। এছাড়াও শসার রসও লাগাতে পারেন। এগুলো মুখের অতিরিক্ত ছোট ছোট তিলের দাগ হালকা করতে সাহায্য করে।

বাজারে ফ্রিকেলস আউট বা তিল দূর করার বিভিন্ন ধরনের ক্রিম পাওয়া যায় । যা বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ব্লিচিং উপাদান দিয়ে তৈরি করা। ব্লিচিং উপাদান ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। তাই এই ক্রিম মুখের ত্বকে না লাগানো উচিত। এর পরিবর্তে বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করাই উচিত ।

মুখে ছোট ছোট কালো তিল দূর করার উপায়ঃ

১। পেঁয়াজঃ

প্রথমে একটি পেঁয়াজ ব্লেন্ড করে এর রস বের করে নিতে হবে। এর পর একটি তুলার বলে এই রস নিয়ে তিলের ওপর লাগাতে হবে। ২০ মিনিট পর পানি দিয়ে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন।

এই উপাদান অনেক দ্রুত মুখের তিল দূর করতে সাহায্য করে। আবার আপনি চাইলেই পেঁয়াজের রসের সঙ্গে মধু মিশিয়েও লাগাতে পারেন।

২। আলুঃ

আলু ভালো করে ব্লেন্ড করে এর সঙ্গে মধু মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাক মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তিলের জায়গায় ভাল করে লাগাবেন।

শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাক কয়েকদিন ব্যবহার করুন।

৩। ওটমিলঃ

ওটমিল সবসময় প্রাকৃতিক স্ক্রাবার হিসেবে বেশ কার্যকর। ওটমিল গুঁড়ো করে এর সঙ্গে তিন টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে বেশ ঘন মিশ্রণ তৈরি করুন। এই প্যাক মুখে লাগিয়ে পাঁচ মিনিট ভাল করে ম্যাসাজ করুন।

১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। সপ্তাহে অন্তত দুইবার ত্বকের ওটমিল দিয়ে স্ক্রাবিং করুন। এভাবে টানা চার সপ্তাহ এই স্ক্রাব ব্যবহার করুন।

আরও যা যা করতে পারেন :

১. প্রতিদিন ভালমানের টক দই ব্যবহার করতে পারেন।

২. কাঁচা দুধ দিয়ে মুখ মুছতে পারেন।

৩. মধু হালকা গরম করে ব্যবহার করতে পারেন।

৪. অতিরিক্ত তিল অপসারণে লেবুর রস লাগাতে পারেন।

৫. বিভিন্ন ধরনের ফলের প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

৬. চিনি ও লেবুর রসের স্ক্রাব করতে পারেন।

৭. কাঁচা হলুদ এবং তিলের গুড়ার পেস্ট ব্যবহার করতে পারেন।