হাত-পায়ের দিকে তাকালে প্রথমেই যা নজরে পড়ে তা হল নখের দিকে।নখকে রাঙিয়ে বা সাজিয়ে আর্কশনীয় করে তুলতে চায় সবাই। সুন্দর ঝকঝকে পরিস্কার নখ সবার পছন্দ। এটি নিয়ে সম্যসা নেহাৎ কম মানুষের নয়।

গরম কালে সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি আপনার ত্বককে বিবর্ণ করে দেয়। এই রশ্মির প্রভাবে ত্বকের কোষগুলো মরে গিয়ে ত্বক হারিয়ে ফেলে তার স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা।

অনেকেই ধারণা করে যে নখের যত্ন শুধু শীতকালেই নিতে হয়। কিন্তু না ।

গরমেও আপনাকে শীতকালের মত সমান গুরুত্ব দিয়ে নখের যত্ন নিতে হবে। তাহলেই আপনার নখ বারো মাসই সুন্দর ও সতেজ থাকবে।

গরমে নখের যত্নে টিপসঃ

নখের রং বদলে গিয়ে হলদেটে ভাব হয় ,কখনো বা নখ ভঙ্গুর হয়ে যায়। এই ধরনের সমস্যা থেকে রেহাই পেতে ও ভালো রাখতে প্রথমেই যা দরকার তা হল পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা। সে জন্য নিয়মিত হাত- ও পায়ের যত্ন নিতে হবে। প্রত্যেক মাসে অন্তত ২ বার ম্যানিকিউর ও পেডিকিউর করতে হবে। অথবা প্রতি মাসে ১৫ দিন পর পর একবার করতে পারেন। এতে নখের সমস্যা অনেকটা কমে যাবে।

নখ ভাঙার সমস্যাঃ

নখ ভাঙার সমস্যা যাদের আছে, তারা চাইলে সবসময় নেইল র্হাডনার ব্যাবহার করতে পারেন। নেইন পালিশের মতো এটি বাজারে কিনতে পাওয়া যায়।

নখের হলদে ভাবঃ

নখের হলদে ভাব দেখা দিলে রাতে ঘুমাতে যাওবার আগে ভ্যাসলিন লাগিয়ে রাখবেন।

উপযোগী ময়েশ্চারঃ

নখের সজীব ও ন্যাচারাল রাখতে এখন নখের ধরন, কারণ, আবহাওয়া, সময়, পরিস্থিতি বিবেচনা করে ব্যবহারের উপযোগী অনেক ধরনের ময়েশ্চার পাওয়া যায়।

রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে নখের ওপর হালকা করে ভ্যাসলিন ম্যাসাজ করুন। এতে করে আপনার নখ মসৃণ থাকবে।

নখের কিউটিকল ড্যামেজঃ

নখের কিউটিকল ড্যামেজ হলে আল্মন্ড অয়েলের সাথে ভ্যাসলিন মিশিয়ে ম্যাসাজ করতে পারেন।

এক্সট্রা টিপস :

=> দাঁত দিয়ে নখ কাটার অভ্যাস থাকলে তা আজ থেকেই বাদ দিন।

=> পেট্টোলিয়াম জেলি নিয়মিত নখে লাগাবেন, এটি নখ ময়শ্চারাইজ করতে সাহায্য করবে।

=> প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় পুষ্টিকর সব খাবার রাখবেন।

=> প্রতিদিন সকালে রোদ নখে লাগাবেন। এতে নখ ভিটামিনি ডি পাবে, যা নখের বৃদ্ধিতে করতে সাহায্য করবে।

=> আপনি চাইলে ভিটামিনও খেতে পারেন নখের বৃদ্ধি জন্য।