চুলের আগা ফাটা রোধ করুন ৫টি

চুলের আগা ফাটা চুলের পুষ্টিহীনতার লক্ষণ। ফাটা চুল চুলের উজ্জ্বলতা নষ্ট করে দেয় এবং চুলের বৃদ্ধি কমে যায়। চুলের প্রতি স্পর্শকাতর নারী একটি জিনিসকে সবসময় ভয় পায়,আর সেটা হচ্ছে চুলের আগা ফাটা। জেনে নিন চুলের আগা ফাটা রোধ করার ঘরোয়া ৫ টি সহজ উপায়।

১। চুল ছাঁটা/কাটা

চুল ছোট হয়ে যাওয়ার ভয়ে অনেকে চুল কাটতে চান না। কিন্তু আপনি জানেন কি, নিয়মিত চুল কাটলে চুল দ্রুত বৃদ্ধি পায়? এছাড়া চুলের আগা ফাটা রোধ করতে চুল ছাঁটা/কাটার বিকল্প নেই।

২। হট টাওয়েল ট্রিটমেন্ট

হট টাওয়েল ট্রিটমেন্ট পদ্ধতি চুলের আগা ফাটা রোধ করে এবং চুলের কোমলতা ধরে রাখতে এর জুড়ি নেই।
প্রথমে মাথার স্কাল্পে এবং চুলে ভালোভাবে তেল লাগিয়ে নিন,খেয়াল রাখতে হবে যেন চুলের আগাতে খুব ভালোভাবে তেল লাগে।
একটি পাত্রে গরম পানি নিয়ে একটি টাওয়েল ভিজিয়ে নিন এবং পানি চিপে গরম টাওয়েল টি মাথায় জরিয়ে রাখুন ১০ মিনিত।
এভাবে ৩/৪ বার করুন।এরপর চুলে শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে ফেলুন।

৩। অলিভ অয়েল

অলিভ অয়েল ত্বক এবং চুলের জন্য খুব উপকারি। অলিভ অয়েল মাথার স্কাল্পে ভালোভাবে মেসেজ করুন যেন প্রত্যেকটি চুলের গোঁড়ায় তেলটি ভালোভাবে লাগে।এবং চুলে আগাতে ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। এর পর ৩০ মিনিট পরে চুল শ্যাম্পু দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে নিন। এতে চুলের গোঁড়া মজবুথ হবে এবং চুলের আগা ফাটা কমে যাবে।

৪। লেবুর রস

চুলের পরিচর্যায় লেবু ব্যাবহার হয়ে আসছে বহু বছর ধরে। চুলের আগা ফাটা রোধ করতে লেবুর রস ব্যাবহারের জুড়ি নেই।
লেবুর রসের সাথে মিশিয়ে নিন সমপরিমাণ পানি । এরপর মিশ্রণটি ভালোভাবে চুলে লাগিয়ে নিন। ২০ মিনিট পরে চুল ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।

৫। চায়ের লিকার

চুলের আগা ফাটা রোধ করতে চায়ের লিকার খুব কার্যকর ভুমিকা রাখে। পানি ফুটিয়ে তাতে হাল্কা চা পাতা ছেড়ে দিন। এরপর চা নামিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন। এখন লিকারে চুল ডুবিয়ে রাখুন ১০ মিনিট। এরপর চুল ভালোভাবে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে নিয়মিত কিছুদিন ব্যাবহার করলে চুলের আগা ফাটা কমে যাবে।