You are here:Home-রেসিপি-রান্না-বান্না

বাদামের লাচ্ছি! এই গরমের স্বাস্থ্যসম্মত পানীয়

খুব গরম পরছে।শুধু পানি খেতে আর ইচ্ছে করছে না। তাই এই গরমে চাই একটি স্বাস্থ্যসম্মত পানীয়। যা খেতেও  মজা , পুষ্টিকর আবার স্বাস্থ্যসম্মত। তাই শরীর মন ঠাণ্ডা এবং মনে প্রশান্তি আনতে খেতে পারেন লাচ্ছি। হাতের কাছে যা থাকে তাই দিয়েই বানাতে পারেন বাদামের ঠাণ্ডা লাচ্ছি। বাদামে থাকে প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন ই, ফাইবার, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডসহ আরও অনেক পুষ্টিগুণ! আবার যারা ডায়েট চার্ট মেনে চলেন তাদের জন্য এটা একদম পারফেক্ট পানীয়। এতে কোন বাড়তি চিনি ব্যাবহার করা হয় না। তাই যারা বাড়তি চিনি পছন্দ করেন না তারাও এটা নির্ভয়ে খেতে পারেন। তাহলে চলুন দেখা যাক বাদামের লাচ্ছি বানানোর সহজ পদ্ধতি।   বাদাম লাচ্ছি তৈরির নিয়ম উপকরণ বাদাম=১/২ কাপ (কাজুবাদাম, চিনাবাদাম, আখরোট বা পেস্তা) টকদই= ১

বাদামের লাচ্ছি! এই গরমের স্বাস্থ্যসম্মত পানীয়2020-05-26T12:43:09+06:00

জিভে জল আসা মুরগীর কিমা দিয়ে পাঁচমিশালি সবজি

মুরগী খেতে কার না ভাল লাগে? ছেলে বুড়ো থেকে শুরু করে সবাই খেতে পছন্দ করে মুরগীর আইটেম। তাই মুরগীর আইটেমে যদি ভিন্ন তা থাকে তাহলে তো কথাই নেই। যে খাবে বা যে রান্না করে খাওয়াবে তাদের জন্য পোয়া ভার। তাই মুরগীর আইটেম সবসময় এক রকম রান্না না করে একটু ভিন্ন করলে কেমন হয়? অবশ্যই ভাল হয়। তাই মুরগীর আইটেমে ভিন্নতা আনতে আজকে আপনাদের জানাব কিভাবে মুরগীর কিমা দিয়ে পাঁচমিশালি সবজি রান্না করা যায়। সবজি খাওয়া ভাল কিন্তু কেউই সহজে খেতে চায় না। অসহ্য লাগে খেতে।  তাই আপনি সহজেই এক ঢিলে দুই পাখি মারতে পারেন। শব্জিও খাওয়া হবে আবার মুরগিও খাওয়া হবে এক সাথে। আর আপনাকে দুই আইটেম রান্নাও করতে হবে না। আপনার সময় কম লাগবে।

জিভে জল আসা মুরগীর কিমা দিয়ে পাঁচমিশালি সবজি2020-05-06T01:09:18+06:00

রমজান স্পেশাল মজাদার মুরগীর কিমা পোলাও

সারা দিন রোযা থেকে ইফতারিতে একটু কম মশলা যুক্ত খাবার চাই। আবার একটু কম মশলার ভিতরেও একটু মশলা যুক্ত আর মুখরোচক চাই। তাই এই দুই এর মিশেলে দারায় একটু চাল এর ভিতরের আইটেম বা খবার। তাই কিমা পোলাও হতে পারে এর সহজ সমাধান। কারন এতে চাল, মশলা, চিকেন সবই আছে। আর মুখরোচক তো বটেই। কিমা পোলাও তৈরি করতেও সহজ । বেশি ঝক্কি ঝামেলা পোহাতে হয় না। সময়ও অন্যান্য আইটেমের থেকে কম লাগে। কারন এতে আলাদা করে তরকারীর আইটেম না করলেও চলে। খেতেও অন্যান্য রেসিপি থেকে ভিন্ন হওয়ায় ছোট বড় সবাই খেতে পছন্দ করে। তাই চলুন জেনে নেয়া যাক  কিভাবে মুরগীর কিমা পোলাও রান্না করা যায়। মুরগীর কিমা পোলাও তৈরির পদ্ধতি উপকরনঃ পোলাও চাল =২ কাপ

রমজান স্পেশাল মজাদার মুরগীর কিমা পোলাও2020-05-06T00:39:51+06:00

কম সময়ের মজাদার জাফরানি পোলাও এর রেসিপি

পোলাও হচ্ছে চাল দিয়ে তৈরি মশলাযুক্ত মজাদার খাবার। চালকে মসলা দিয়ে ভেজে এর স্বাদ বিভিন্ন ভাবে বিভিন্ন রকমের করা হয়। অঞ্চল ভেদে, মানুষের রুচির ভেদে এর রকম আলাদা হয়। তেমনি আজকে জানব এক ভিন্ন পদের পোলাও। মজাদার জাফরানি পোলাও। খুব সহজেই অল্প আয়োজনেই রান্না করা যায় এই পোলাও। যা আপনার গতানুগতিক পোলাও এর স্বাদ এর থেকে ভিন্ন।যা আপনার রান্না করেও তিপ্তি পাবেন, খেয়েও পাবেন। তাই আজকের রেসিপি মজাদার জাফরানি পোলাও। চলুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে তৈরি করতে হয় মজাদার জাফরানি পোলাও।   মজাদার জাফরানি পোলাও তৈরির পদ্ধতিঃ উপকরণ পোলাও এর চাল =৪ কাপ ঘি =১/২ কাপ পেঁয়াজ কুঁচি= ২ টেবিল চামচ দারচিনি টুকরা= কয়েকটা এলাচ =৪ টি লবঙ্গ =২ টি আদা বাটা =২ চা চামচ

কম সময়ের মজাদার জাফরানি পোলাও এর রেসিপি2020-05-01T13:17:40+06:00

ভিন্ন স্বাদের মিষ্টি কুমড়ার আচারি ও সহজ রেসিপি

মিষ্টি কুমড়া যেকোনো কিছু দিয়েই খেতে ভাল লাগে। তা যাই হোক ভাত বা রুটি। মিষ্টি কুমড়ায় বিভিন্ন পুষ্টি উপাদান আছে। ভিটামিন এ, ভিটামিন ই, আয়রনসহ আরও নানা পুষ্টিগুণ আছে। মিষ্টি কুমড়া সারা মাসব্যাপী একটি সবজি। এটা যেমন সারা বছর পাওয়া যায় তেমনি মানুষ খেতেও পারে। মিষ্টি কুমড়া আমরা সব সময় ভাজি, ভর্তা , ঝোল বা তরকারি হিসাবে খাই মাছের সাথে। কিন্তু আজকে জানব ভিন্ন রকমের এক আইটেম, মিষ্টি কুমড়ার আচারি। সারা দেশের এই লকডাউনে বাহিরে চলাচল স্বাভাবিক নয়। তাই আপনি সবজি হিসাবে এটা কিনে অন্যান্য সব্জির তুলনায় বেশি দিন সংরক্ষন রাখতে পারবেন। সহজে সবজির চাহিদাও পূরণ করতে পারবেন। আবার মিষ্টি কুমড়ার দামটাও হাতের নাগালের মধ্যেই থাকে। তাই এই রমযানে হতে পারে আপনার রাতে বা বিশেষ

ভিন্ন স্বাদের মিষ্টি কুমড়ার আচারি ও সহজ রেসিপি2020-04-30T13:03:00+06:00

ইলিশ পোলাও ও ইলিশ খিচুরির মজাদার রেসিপি

ইলিশ পোলাও বা ইলিশ খিচুরির নাম শুনলে জিভে পানি আসবে না এমন মানুষ পাওয়া দুস্কর। ইলিশ মাছ এর সাধ অনন্য। ইলিশ মাছ রান্না করা যায় অনেক রকম ভাবে। তেমনি ইলিশ পোলাও ও ইলিশ খিচুরি। চলুন জেনে নেয়া যাক মজাদার ইলিশ পোলাও ও ইলিশ খিচুরি রান্নার সহজ উপায়ঃ ইলিশ পোলাও উপকরণ : পোলাও চাল =৫০০ গ্রাম, ইলিশ মাছ =১২ টুকরো, আদা বাটা =১ চা চামচ, রসুন বাটা =১/২ চা চামচ, টকদই =১ কাপ, লবণ =স্বাদমত, দারুচিনি =২ টুকরা, এলাচ =৪টি, পেঁয়াজ বাটা =৩/৪ কাপ, পেঁয়াজ স্লাইস =আধা কাপ, পানি =৪ কাপ, কাঁচামরিচ =১০টি, চিনি =১ চা চামচ, তেল আধা কাপ। প্রণালি : বড় বড় দুইটা ইলিশ মাছের আঁশ ছাড়িয়ে নিয়ে ধুয়ে মাঝের অংশের টুকরোগুলো নিন। মাছের

ইলিশ পোলাও ও ইলিশ খিচুরির মজাদার রেসিপি2019-04-11T21:04:58+06:00

পহেলা বৈশাখের আয়োজনে ইলিশের ৪ পদ

ইলিশ খেতে ভালোবাসে না এমন বাঙালি নেই বললেই চলে। ইলিশ ছারা যেন পহেলা বৈশাখের সকালটাই সকাল মনে হয় না। তাই পহেলা বৈশাখের সকালে পান্তা-ইলিশ চাই-ই চাই। সেই আয়োজনকে একটু ভিন্ন রকমের স্বাদে সাজাতে ইলিশের ৪ পদের রেসিপি নিচে দেয়া হলঃ সর্ষে ইলিশ উপকরণ : ইলিশ মাছ বড় সাইজের =৮ টুকরা, সাদা শর্ষে বাটা =৪ টেবিল চামচ, তেল =৩ টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া =১ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া =২ চা চামচ, পানি =আধা কাপ, পেঁয়াজ বাটা =আধা কাপ ও লবণ স্বাদমতো। প্রস্তুত প্রণালি : ফ্রাইপ্যানে তেল গরম করে পেঁয়াজ বাটা ছেরে দিন। পেঁয়াজের রঙ হালকা বাদামি হয়ে এলে সব মসলা এক সঙ্গে দিয়ে অল্প পানি দিয়ে মসলাটা কষিয়ে নিন। কষানো মসলার মধ্যে ইলিশ মাছের টুকরোগুলো ছেড়ে

পহেলা বৈশাখের আয়োজনে ইলিশের ৪ পদ2019-04-09T17:20:23+06:00

ঝটপট বানিয়ে ফেলুন শহী গাজরের হালুয়া

ঝটপট বানিয়ে ফেলুন শহী গাজরের হালুয়া শীতকাল শব্দটা শুনলেই ভোজন রসিকদের মাথায় পরপর কয়েকটা নাম চলে আসে। যেমন  পিঠাপুলি, খেজুরের রস, খেজুর গুড় , বাহারি সবজি ইত্যাদি। আর শীতের সময়ে বাজারে নানারকম সুস্বাদু টাটকা সবজি পাওয়া যায়। গাজর তার মধ্যে খুব পরিচিত। সাধারণত বিভিন্ন রান্নাকে কালারফুল করতে আমরা গাজর বেশি ব্যবহার করি। তাছাড়া এই সবজি দিয়ে আরো নানারকম মুখরোচক ডেজার্ট বানানো যায়। যেমন , গাজরের হালুয়া, গাজরের বরফি, ছানা গাজরের সন্দেশ বা ক্যারোট ডিলাইট, গাজরের কেক /ক্যারোট কেক, বেকড ক্যারোট ডিলাইট আরো কত কি ! এই সব কিছুর মধ্যে সবথেকে সহজ আর ঝটপট তৈরী করা যায় গাজরের হালুয়া। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক রেসিপিটি।  উপকরণ সমূহ ১। গ্রেট করা গাজর - ৩ কাপ ২। চিনি

ঝটপট বানিয়ে ফেলুন শহী গাজরের হালুয়া2019-03-23T00:36:10+06:00

বাংলাদেশি রেস্টুরেন্ট স্টাইলে থাই স্যুপ রেসিপি

বাংলাদেশি রেস্টুরেন্ট স্টাইলে থাই স্যুপ রেসিপি বর্তমানের এই  ব্যস্ততার দিনে সময় সল্পতার কারনে রেস্টুরেন্টের মজাদার খাবার গুলা আর খাওয়া হয়ে ওঠে না। ব্যস্ততা গ্রাস করে ফেলেছে আমাদের সুন্দর মুহূর্ত গুলো। তবে খাওয়ার ইচ্ছে হলে সেটা তো মিস করা যায়না। হ্যাঁ তবে ঘরে বসে আপনি তৈরি করতে পারবেন রেস্টুরেন্ট এর মত মজাদার থাই স্যুপ। চলুন তাহলে রেসিপি টা জেনে নেওয়া যাক। উপকরণ সমূহ ১।  চিকেন স্টক প্রায় ৪ কাপ ২।  রান্না করা চিংড়ি ও চিকেন ১/২ কাপ ৩।  স্পেশাল সস ১/২ কাপ ৪।  কর্ণ ফ্লাওয়ার ৪ থেকে ৫ টেবিল চামচ ৫।  ডিম ১ টি ৬।  লেমন গ্রাস ১ টি ৭।  লেবুর রস ২ চা চামচ ৮।  লবন পরিমান মত একটি পাত্রে চিকেন স্টক নিয়ে নিন, অবশ্যয়

বাংলাদেশি রেস্টুরেন্ট স্টাইলে থাই স্যুপ রেসিপি2019-03-05T17:07:56+06:00
Go to Top