You are here:Home-লাইফ স্টাইল-ফ্যাশন

সাজগোজের ফ্যাশন বা স্টাইল এর পূর্ণতায় চাই ঘড়ি

ঘড়ি জীবন চলার পথের অন্যতম অনুষঙ্গ। সময়ের বিবর্তনে এর ফলে জায়গা দখল করেছে মুঠোফোন। তাই ঘড়ির অবস্থান এখন প্রয়োজনের চেয়ে বেশি ফ্যাশনে।প্রয়োজনের সঙ্গে ফ্যাশনের কথা মাথায় রেখে তরুণ-তরুণী অর্থাৎ তরুন প্রজন্মের সবার কাছেই হাতঘড়ির ব্যবহারে পরিবর্তন এসেছে। বাজার ঘুরলে দেখা যায় ঘড়িগুলোতে ডায়াল ও চেনে এসেছে ভিন্নতা। তবে তরুণদের কাছে সব সময় ব্র্যান্ডের ঘড়িগুলোই সবসময় চাহিদার শীর্ষে থাকে। কারণ এগুলো যেমন দেখতে ফ্যাশনেবল, তেমনি টেকেও অনেক দিন। কার জন্য কেমন ঘড়ি আপনি প্রথমেই ঠিক করুন কোন ধরনের ঘড়ি ব্যবহার করতে চান। বাজারে আছে ব্যাটারিচালিত কোয়ার্টজ মুভমেন্ট ঘড়ি ও মেকানিজম মুভমেন্ট ঘড়ি। এর বাইরেও ডিজিটাল ঘড়ি আছে, এতে আছে প্রযুক্তির সব সুবিধা। আবার কোয়ার্টজ মুভমেন্টে ঘড়ি প্রতি সেকেন্ডে কয়েক হাজারবার ভাইব্রেশন দিয়ে থাকে। এই ঘড়ির ব্যাটারি

সাজগোজের ফ্যাশন বা স্টাইল এর পূর্ণতায় চাই ঘড়ি2019-07-18T17:45:21+06:00

কোন কারনে কেন আপনি সানগ্লাস পরবেন

সানগ্লাস পরা এখন একটা ট্রেন্ড হয়ে গেছে। মডেল, অভিনেতা থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের চোখে ঘুরছে বাহারি সানগ্লাস।চোখকে সূর্যের ক্ষতিকর অতি-বেগুনি রশ্মির হাত থেকে রক্ষা করার জন্য সানগ্লাস ব্যবহার করা হয়। সূর্যের ক্ষতিকর অতি-বেগুনি রশ্মি চোখের ভেতরের অংশের ক্ষতি করে। এখানেই শেষ নয়।চোখের পাতা, চোখের চারপাশ, ত্বকে জ্বালাভাব, কালি পড়া, ভাঁজ পড়া ইত্যাদি সমস্যা থেকে বাঁচতে সানগ্লাস পড়া প্রয়োজন। কেন আপনি সানগ্লাস পরবেন? ১. ধূলোবালি থেকে রক্ষা পেতে : রাস্তাঘাটে বের হলেই অনেক ধূলাবালির সম্মুখীন হই। অনেকেরই আবার চোখে অ্যালার্জির সমস্যা থাকে। তারা অবশ্যই ধূলাবালির প্রভাব থেকে চোখকে বাঁচাতে চাইলে সানগ্লাস পরবেন।চোখে অনাকাঙ্খিত পোকামাকড় থেকেও রক্ষা পাওয়া যায়। ২. আলাদা রকমের ভাব দেখাতে : অনেকেই সানগ্লাস পরে ছবি তুললে আলাদা একটা ভাব আসে। যা তাঁকে

কোন কারনে কেন আপনি সানগ্লাস পরবেন2019-05-11T00:28:20+06:00

পারফিউম উপহার দেওয়ার সহজ ও ঝটপট টিপস

উৎসবে কিংবা নানা অনুষ্ঠানে সব জায়গাতে যাওয়ার সময় প্রথমেই যা মাথায় আসে তা হলো উপহার । যখন কারো জন্য উপহার কেনার পালা আসে তখন সেই উপহার নির্বাচন করা নিয়ে তৈরি হয় বিভ্রান্তি ।অনেকে উপহার দেয়া নিয়ে নাকানি চুবানি অবস্তাতেও পরেন।তাই তারা ভাবতে পারেন সহজ ভাবেই, সহজ কিছু। যেমন পারফিউম। পারফিউম একজন মানুষের খুব ব্যক্তিগত একটি প্রসাধনী। প্রতিটি মানুষেরই পারফিউমের পছন্দ ভিন্ন। আর তাই পারফিউম উপহার দেওয়াটাও খুবই অন্তরঙ্গ একটি কাজ। এ কারনে উপহার হিসেবে পারফিউম দেওয়ার আগে চিন্তাভাবনা করে নেওয়া উচিত। আপনার কাছে কোনো পারফিউম ভালো লাগলেই অন্যের কাছে তা ভাল না লাগতেও পারে। পারফিউম গিফট দেওয়ার আগে জেনে নিন কিছু টিপস- পারফিউম উপহার দেওয়ার ঝটপট টিপস ১) পোশাক থেকে আঁচ করুন অনেকের পোশাক থেকেই

পারফিউম উপহার দেওয়ার সহজ ও ঝটপট টিপস2019-05-03T19:54:39+06:00

গরমে পারফিউম কোথায় দিবেন না এবং কোথায় দিবেন

গরমকালে পারফিউম ছাড়া বাইরে বের হওয়ার কথা ভাবতে পারেন না অনেকে। পারফিউম এক বার চাপলে বা স্প্রে করলে নির্দিষ্ট পরিমান লিকুইড বের হয়, যা আমাদেরকে গরমে ঘামের দুরগন্ধ থেকে দূরে রেখে সুগন্ধি দেয়। তবে পারফিউম দিতে গিয়ে আমরা অনেকেই ভুল করে ফেলি। শরীরের ভুল জায়গায় পারফিউম দিয়ে ফেলি এবং পরে এর বাজে অভিজ্ঞতায় পরি যা মেনে নেয়া যায় না। এতে করে হিতে বিপরিত হয়ে যায়। এমনকি উল্টো এতে ক্ষতিই হতে পারে। পারফিউম তাই যেমন তেমন করে লাগালেই হবে না। তাই জেনে নিন শরীরের যেসব জায়গায় পারফিউম না দেওয়াই ভালো- যেখানে পারফিউম দিবেন নাঃ ১) চোখ চোখে পারফিউম দেওয়ার মতো বোকামি করবে না কেউ। কিন্তু ভুলেও যদি চোখে পারফিউম চলে যায় তাহলে দ্রুত অনেক বেশি করে

গরমে পারফিউম কোথায় দিবেন না এবং কোথায় দিবেন2019-05-02T00:14:20+06:00