You are here:Home-স্বাস্থ্য-খাদ্য ও পুষ্টি

তোকমার অবিশ্বাস্য গুনাবলি ও কার্যকরী উপায়

তোকমা ছোট কালো রঙের একটি বীজ ,যা মূলত বিভিন্ন মিষ্টি পানীয় কিংবা শরবত তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। আয়ুর্বেদিক চিকিৎসায়ও তোকমার বীজ অন্যতম একটি উপাদান। এটি স্থানভেদে বিভিন্ন নামে পরিচিত। সবজা বীজ, মিষ্টি বাসিল, ফালুদা বীজ কিংবা তুর্কমারিয়া বা তোকমা বীজ হিসেবে পরিচিত। বহু গুণ রয়েছে এই বীজটির। চলুন জেনে নেয়া যাক তোকমার নানান গুন সম্পর্কেঃ ১. ওজন কমাতে দেহের ওজন কমাতে তোকমার জুড়ি নেই। পানিতে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখলেই বীজটি (তোকমা) ফুলে ওঠে। এরপর সেই পানি কিংবা নানা মসলা দিয়েও তা সুস্বাদু করে পান করা যায়। তোকমার "ওমেগা থ্রি" ফ্যাটি অ্যাসিড দেহের জন্য অত্যন্ত উপকারী। এ ছাড়াও এর নানা উপাদান দেহের চর্বি কমাতেও সহায়তা করে।এতে রয়েছে প্রচুর আঁশ, যা বাড়তি ক্ষুধা দূর করে এবং পেট দীর্ঘক্ষণ পরিপূর্ণ

তোকমার অবিশ্বাস্য গুনাবলি ও কার্যকরী উপায়2019-05-23T12:41:16+06:00

তেতুলের ১০টি উপকার ও এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

তেঁতুল পছন্দ করে না এমন মানুষ পাওয়া খুব কঠিন। বিশেষ করে তরূণীদের খাবারের তালিকায় উপরের দিকেই পাওয়া যায় এর নাম। তবে অনেকেরই ধারণা তেঁতুল খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এবং তেঁতুল খেলে রক্ত পানি হয়। "তেতুল খেলে রক্ত পানি হয়ে যায় কিংবা তেতুল মস্তিষ্কের জন্য ক্ষতিকর" আধুনিক ডাক্তারদের মতে এ ধারনা সম্পূর্ণ ভুল। সব কিছুরই যেমন ভাল ও মন্দ আছে। তেমনি তেতুল এর ও ভাল ও মন্দ বা উপকার ও অপকার দুইটাই আছে। গরমে এটির খুব কদর বারে অন্য সময়ের তুলনায়। ছেলে মেয়ে উভয়ে তেতুল খেতে পারে। জেনে নেই তেতুলের উপকারিতা ১) হজম শক্তি বাড়ায় কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে : পেট ব্যথা বা কোষ্ঠকাঠিন্যর মতো সমস্যার সমাধান যদি চান, তেঁতুলের সাহায্য নিন।তেঁতুলের মধ্যে টার্টারিক অ্যাসিড, ম্যালিক অ্যাসিড

তেতুলের ১০টি উপকার ও এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া2019-04-29T11:29:13+06:00

কাঁচা মরিচ আপনার স্বল্প দামের ঘরের ডাক্তার

প্রতিদিন একটি করে কাঁচা মরিচ খান ? না খেলে আজ থেকেই শুরু করে দিন খাওয়া। কারন,কাঁচা মরিচে আছে ভিটামিন সি। তাই যে কোনো ধরণের কাটা-ছেড়া কিংবা ঘা শুকানোর জন্য কাঁচা মরিচ খুবই উপকারী। গরম কালে কাঁচা মরিচ খেলে ঘামের মাধ্যমে শরীর ঠান্ডা থাকে। প্রতিদিন একটি করে কাঁচা মরিচ খেলে রক্ত জমাট বাধার ঝুঁকি কমে যায়।কাঁচা মরিচে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বিটা ক্যারোটিন আছে যা কার্ডোভাস্ক্যুলার সিস্টেম কে কর্মক্ষম রাখে।কাঁচা মরিচে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি আছে যা মাড়ি ও চুলের সুরক্ষা করে।নিয়মিত কাঁচা মরিচ খেলে নার্ভের বিভিন্ন সমস্যা কমে। কাঁচা মরিচ ভিটামিনের চমৎকার উৎসঃ আধা কাপ পরিমাণ কুচি কাঁচা মরিচে প্রায় ৮০০ ইউনিটেরও বেশি ভিটামিন এ রয়েছে। আর ভিটামিন এ দৃষ্টিশক্তির জন্য ভালো, রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। সমপরিমাণ

কাঁচা মরিচ আপনার স্বল্প দামের ঘরের ডাক্তার2019-04-18T15:52:47+06:00

বাদাম নাকি ছোলা, কোনটা খাবেন আগে।বাদাম ও ছোলা বিষয়ে টিপস।

বাদাম ও ছোলা দুইটাই খুব পরিচিত খাবার। পুষ্টিকর গুণাগুণের দিক থেকে অনেক কিছুর মধ্যে মিল রয়েছে বাদাম ও ছোলায়। এই পর্বে বাদাম ও ছোলা বিষয়ে কিছু টিপস দেবো ।আপনি যদি টিপস গুলো গ্রহণ করেন তাহলে আপনার শরীরের পুষ্টিগুণ বেড়ে যাবে। বাদাম আপনি কি বেশি লবন খান ? তাহলে  আজ থেকে প্রতিদিন বাদাম খাওয়ার  অভ্যাস গড়ে তুলুন কারণ আপনাকে কম লবণ খাওয়ার সহায়তা করবে। সাধারণত মসলা যুক্ত মজার স্ন্যাকসে লবণের পরিমান অতিবেশি থাকে।মসলা যুক্ত বাদামে যে পরিমান লবন থাকে, ঠিক সেই পরিমান এর চেয়ে এক কেজি স্নাকস্  এর তার চেয়ে বেশি লবন থাকে। এই দিক বিবেচনা করে আপনি যদি স্নাকস্-এর পরিবর্তে বিকল্প হিসেবে বাদাম খান, সেটা আপনার শরীরে অতিরিক্ত লবন জনিত রক্তচাপ কমাতে বেশ সাহায্য করতে

বাদাম নাকি ছোলা, কোনটা খাবেন আগে।বাদাম ও ছোলা বিষয়ে টিপস।2019-03-01T15:29:30+06:00

কাঁচা আম এর অসাধারণ পরিমানের ১৫ টি গুনাগুন ।

গ্রীষ্ম কালিন ফলের মধ্যে সবচেয়ে মজাদার একটি ফল হল আম। আম খেতে পছন্দ করে না, এমন মানুষ খুজে পাওয়া খুবই কঠিন ব্যাপার। কাঁচা আম অথবা পাকা আম, যেটাই খান না কেন সবই আপনার শরীরের জন্য খুবই উপকারী। অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় পাকা আমের তুলনায় কাঁচা আমের গুনাগুণ অনেক বেশি থাকে। এই পর্বে আমরা আপনাকে কাঁচা আমের অসাধারণ কিছু গুনাগুণের কথা জানাবো। কাঁচা আম এর গুনাগুন গুলো হলঃ কাঁচা আম খেলে আপনার স্মৃতিশক্তি বাড়াতে অনেক সাহায্য করবে। আপনি জানেন না হয়তোবা, ক্যারোটিন ও ভিটামিনসমৃদ্ধ কাঁচা আম খেলে আপনার চোখ ভালো থাকবে কাঁচা আমের মধ্যে বিটা ক্যারোটিন থাকায় কারণে হার্টের সমস্যা প্রতিরোধে করতে সাহায্য করে। খেলে শরীরের পটাশিয়ামের অভাব পূরণ হয়। প্রচুর পরিমাণে আয়রন থাকায় রক্তস্বল্পতা সমস্যা

কাঁচা আম এর অসাধারণ পরিমানের ১৫ টি গুনাগুন ।2017-05-09T04:28:56+06:00