You are here:Home-সৌন্দর্য টিপস-সচেতনতামূলক টিপস

ঘর বসেই সহজে ফুট বা সু স্প্রে বানাতে চান

অনেকক্ষণ জুতা পরে থাকার ফলে পা ঘেমে দূরগন্ধ সৃষ্টি হয়। ফলে অন্য জনের তো বটেই নিজেরও বিরক্তি হয়। বিশ্রী একটা অবস্তা সৃষ্টি হয়, মেজাজ বিগরে যায়। ধরুন আপনি সারা পরে অফিসের কাজ শেষ করে কোন পার্টি বা কথাও ঘুরতে গেলেন। বা আপনি বন্ধুদের সাথেই ঘুরতেই গেলেন। তখন যদি আরামের জন্য জুতা খুলেন ,আর খুলেই যদি আই বিশ্রী অবস্থায় পরেন? তাহলে আর কি আপনার পাশের বেক্তি তো নাক শিটকাবেই সাথে সাথে নিজের মেজাজ গরম হবে। আর তাই আই অবস্থা যাতে আর না হয় তাই ফুট স্প্রে বা সু স্প্রে ব্যাবহার করতে হবে।আর যদি জুতা পায়ে দেয়ার সময় দেখলেন যে ফুট স্প্রে বা সু স্প্রে শেষ? চিন্তার কোন কারন নেই? আপনি ঘরেই সহজে বানাতে পারবেন ফুট স্প্রে

ঘর বসেই সহজে ফুট বা সু স্প্রে বানাতে চান2020-05-06T13:08:22+06:00

করোনা ভাইরাস কি শুধু জামা কাপড়েই আর হাতে আটকায়?

করোনা ভাইরাস কি শুধু জামা কাপড়েই আর হাতে আটকায়? আমরা সবাই জানি যে,তিন থেকে চার ফুট দূরে থাকলে ভাইরাস গায়ে লাগে না। ছয় ফুট দূরে থাকলে হাঁচি কাশির মাধ্যমে ভাইরাস ছরায় না। শুধু কি এইটুকুই সাবধানতা অবলম্বন করলেই করোনা ভাইরাস থেকে দূরে থাকা যাবে? যাবে না। করোনা ভাইরাস থেকে দূরে থাকতে হলে বা মুক্ত থাকতে হলে লাগবে পরিপূর্ণ সাবধানতা। তাই আমাদের আগে জানতে হবে করোনা ভাইরাস কোন কোন মাধ্যমে ছড়ায়। সারা দেশে এখন লকডাউন চলছে। কিন্তু আমরা কি লকডাউন পুরোপুরি ভাবে মেনে চলি বা চলতে পারি? পারি না। কারন আমাদের কোন না কোন খুব দরকারি কাজের জন্য বাহিরে যেতে হয়। জরুরি ওষুধ পত্র আনার জন্য হলেও বাহিরে যেতে হয়।সব বাজার এক সাথে করা যায় না।

করোনা ভাইরাস কি শুধু জামা কাপড়েই আর হাতে আটকায়?2020-04-26T12:24:00+06:00

এক টাকায় ৮০ বার হাত জীবাণুমুক্ত করার উপায়

এক টাকায় ৮০ বার হাত জীবাণুমুক্ত করার এমনি উপায় বের করেছেন আইসিডিডিআরবি। চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। যা আস্তে আস্তে সব দেশেই সরাচ্ছে। এবং এটা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে বড় রকমের মহামারির আকার নিচ্ছে। এটার ভ্যাকসিন এখনও বের না হওয়ায় এটা নিয়ে আতঙ্ক দিন দিন বেরেই যাচ্ছে। তাই বেশি বেশি সতর্ক থাকতে বলা হচ্ছে ও নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখতে বলা হচ্ছে। নিয়মিত হাত পরিস্কার রাখতে বলা হচ্ছে। কারন হাতের মাধ্যমেই জিবানু বা ভাইরাস বেশি ছড়িয়ে থাকে। হাতের মাধমেই নাক কান চোখ এর সংস্পর্শ হয়। যার ফলে করোনা হওয়ার আসঙ্কা থাকে। আর তাই ডাক্তার বা বিশেষজ্ঞরা বার বার দূরত্ব বজায় রাখতে বলছেন। হাত সব সময় পরিষ্কার রাখতে বলছেন। হাতে হ্যান্ডগ্লভস পরতে বলছেন।

এক টাকায় ৮০ বার হাত জীবাণুমুক্ত করার উপায়2020-04-18T23:55:18+06:00

টাকা লেনদেনের সময় ভাইরাস মুক্ত থাকার উপায়

চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস অনেক দেশেই ছড়িয়ে পড়েছে। "কভিড-১৯" বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া করোনা ভাইরাস ডিজিজ-২০১৯ এর অফিশিয়াল নাম।বিভিন্ন ভাবে এই ভাইরাস চারিদিকে দিনে দিনে ছড়িয়ে পরছে এবং মহামারিতে রুপ নিচ্ছে। এই ভাইরাস বিভিন্ন ভাবে ছড়িয়ে পড়েছে বিভিন্ন ভাবে, যেমনঃ সংস্পর্শের মাধ্যমে,হাঁচি, কাশি, লালা বা থুতু,হাঁচি, কাশি, লালা বা থুতু, আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার সময়, টাকা লেনদেনের সময় ও আরও অনেক ভাবে। টাকার মাধ্যমে কিভাবে ভাইরাস ছড়ায় ও কিভাবে এর সংক্রমণ এরিয়ে চলবেন তা জানাবো। ব্যাংক নোট বা টাকায় বা মুদ্রায় নানা ধরণের জীবাণুর উপস্থিতি নতুন কিছু নয়। এমনকি ব্যাংক নোটের মাধ্যমে ভাইরাস সংক্রামক নানা রোগ ছড়িয়ে পড়ার কথাও বলেন বিশেষজ্ঞরা।যেমনঃ বাংলাদেশের একদল গবেষক গত বছরের অগাস্ট মাসে বলেছিলেন যে,

টাকা লেনদেনের সময় ভাইরাস মুক্ত থাকার উপায়2020-04-16T23:03:30+06:00

মাস্ক কিভাবে ব্যাবহার করে ভাইরাস ঠেকানো যায়?

মাস্ক পরে কি ভাইরাস ঠেকানো যায়? ভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া বা যেকোনো খবরের জন্য মাস্ক বা মুখোশ পরা কোন মানুষের মুখচ্ছবি হতে পারে সহজ উপায়।বিশ্বের সব দেশেই সংক্রমণ ঠেকানোর জন্য জনপ্রিয় ব্যবস্থা হচ্ছে মাস্ক বা মুখোশ এর ব্যবহার।যা খুব সহজেই ভাইরাস এর সংক্রমণ ঠেকানো না গেলেও লাঘব করা যায়। বিশেষ করে চীনে অর্থাৎ যেখান থেকে শুরু হয়েছে করোনাভাইরাস, সেখানেও মানুষ বায়ু দূষণের হাত থেকে বাঁচতে হরহামেশা নাক আর মুখ ঢাকতে মুখোশ পরে ঘুরে বেড়ায়।ভাইরোলজিস্ট অর্থাৎ যারা ভাইরাস বিশেষজ্ঞ তারা যথেষ্টই সংশয়ে আছেন যে, বায়ুবাহিত ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে এই মাস্ক কতটা কার্যকর সে ব্যাপারে। আসলেই কি মাস্ক পরে ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকানো যায়? তবে ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকানো না গেলেও এর হাত থেকে মুখে সংক্রমণ ঠেকাতে এই মাস্ক

মাস্ক কিভাবে ব্যাবহার করে ভাইরাস ঠেকানো যায়?2020-04-15T21:47:26+06:00

অগ্নি নির্বাপণের ব্যবস্থা ও দূঘটনা থেকে বাঁচার উপায়

আগুন এর একটাই গুণ--- সুধু জ্বালাতেই জানে, নিভাতে বা অন্য কিছু নয়। এই অগ্নি কাণ্ড বা খুদা এতোটাই একপাক্ষিক যে, জান-মাল সহ কোন কিছুই অবশিষ্ট রাখে না। বাসা-বাড়ি, অফিস-আদালত থেকে শুরু করে মার্কেট-বহুতল ভবন, যান-বাহন ইত্যাদির প্রায় সকল ক্ষেত্রে, অগ্নি নির্বাপক বা আগুন নিবানোর বা নিয়ন্ত্রণে আনার সিস্টেমের অভাব বা অপ্রতুলতা এবং আমাদের ভয়ানক অজ্ঞতা ও অসচেতনতার কারণে যেকোন সময় ,যেকোন স্থানে যে কেউ অগ্নিকাণ্ডের হয়। পুরনো ঢাকার চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আরও একটা ভয়াবহ অগ্নিকান্ড হয়ে গেল, বনানী এফ আর ভবন এ । একটু সচেতন হলেই, আমরা অনেক বড় বড় দুর্ঘটনা থেকে পরিত্রান পেতে পারি। প্রতিরোধ গড়ে তুলুনঃ => আগুন থেকে বাঁচার শ্রেষ্ঠ উপায় , সম্ভাব্য অগ্নিকাণ্ডের প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা ও

অগ্নি নির্বাপণের ব্যবস্থা ও দূঘটনা থেকে বাঁচার উপায়2019-04-06T23:25:39+06:00

কম্পিউটারের ৩টি সমস্যার সহজ সমাধান।

কম্পিউটারে কাজ করতে করতে হঠাৎ করে কম্পিউটার এর মধ্যে কিছু সমস্যা দেখা যায়। তবে এই সমস্যা গুলো তেমন একটি বড় সমস্যা নয় তাই চেষ্টা করলে আপনি নিজেই ঐ সমস্যার সমাধান করতে পারেবেন। যাইহোক, এই পর্বে আপনাকে কম্পিউটার এর ছোট বড় ৩ টি সমস্যা এর সহজ সমাধান করে দেওয়া হল। প্রথমে আপনার করণীয়! আপনার কম্পিউটার এর কোনো সমস্যা দেখা দিলে অন্য কিছু কোন কাজ করার আগে প্রথম কাজটি যা করবেন তা হল, আপনি কম্পিউটারটি পুনরায় চালু বা রিস্টার্ট করে ফেলেন। আপনার এই ছোট কাজটি অনেক সমস্যার সমাধান করে দিবে। কম্পিউটারে সংযুক্ত কোনো যন্ত্রপাতির সমস্যা দেখা দিলে সেটি বন্ধ করে পুনরায় চালু করবেন। তারপরেও যদি কাজ না হয় তাহলে যন্ত্রটি প্রথমে কম্পিউটার থেকে খুলে আবার লাগিয়ে নিন,

কম্পিউটারের ৩টি সমস্যার সহজ সমাধান।2017-04-12T15:52:26+06:00

যেভাবে লবন খাওয়া কমাবেন

নুনের মতো ভালোবাসা’ গল্পটি নিশ্চয়ই জানেন। রাজকন্যারা রাজাকে কে কেমন ভালবাসেন জানতে চাইলে অন্যান্য মেয়েরা দামি দামি জিনিসের মত ভালবাসার কথা বললেও ছোট মেয়ে বলেছিলেন-নুনের মত ভালবাসি। উত্তরে রাজা অখুশি হয়ে তাকে নৌকায় সমুদ্রে ভাসিয়ে দেয়। তার কান্নার পানি সমুদ্রে মিশে গিয়ে পানি হয়ে যায় নোনা। এটা রূপকথার গল্প। গল্পে ছোট মেয়ের ভাষ্য দিয়ে আমাদের জীবনে লবনের ব্যবহারের কথা বোঝানো হয়েছে। খাবারের অন্যতম দরকারি উপাদান লবণ বা নুন। অন্য উপাদানগুলোর তুলনায় পরিমাণে কমই লাগে, কিন্তু না হলেও চলে না। লবণক্ষেতের দখল নিয়ে ইতিহাসে যুদ্ধ হয়েছে, সামান্য লবণ খাইয়ে জমিদারের কাছ থেকে ক্ষেতিজমি উপহার পেয়েছেন অসহায় কৃষক। মালিকের লবণ বা নিমক খাওয়ার কারণে সততা ও ঈমানের পরীক্ষা দিতে হয়েছে অনুগত কর্মচারীদের। সেই থেকে চালু হয়েছে নিমক

যেভাবে লবন খাওয়া কমাবেন2017-03-27T15:16:49+06:00