You are here:Home-সৌন্দর্য টিপস

ঘর বসেই সহজে ফুট বা সু স্প্রে বানাতে চান

অনেকক্ষণ জুতা পরে থাকার ফলে পা ঘেমে দূরগন্ধ সৃষ্টি হয়। ফলে অন্য জনের তো বটেই নিজেরও বিরক্তি হয়। বিশ্রী একটা অবস্তা সৃষ্টি হয়, মেজাজ বিগরে যায়। ধরুন আপনি সারা পরে অফিসের কাজ শেষ করে কোন পার্টি বা কথাও ঘুরতে গেলেন। বা আপনি বন্ধুদের সাথেই ঘুরতেই গেলেন। তখন যদি আরামের জন্য জুতা খুলেন ,আর খুলেই যদি আই বিশ্রী অবস্থায় পরেন? তাহলে আর কি আপনার পাশের বেক্তি তো নাক শিটকাবেই সাথে সাথে নিজের মেজাজ গরম হবে। আর তাই আই অবস্থা যাতে আর না হয় তাই ফুট স্প্রে বা সু স্প্রে ব্যাবহার করতে হবে।আর যদি জুতা পায়ে দেয়ার সময় দেখলেন যে ফুট স্প্রে বা সু স্প্রে শেষ? চিন্তার কোন কারন নেই? আপনি ঘরেই সহজে বানাতে পারবেন ফুট স্প্রে

ঘর বসেই সহজে ফুট বা সু স্প্রে বানাতে চান2020-05-06T13:08:22+06:00

আইশ্যাডো দিয়ে নতুন নতুন নেইলপলিশ বানাতে চান?

ঘরে বাহারি রঙ এর নেইলপলিশ থাকলেও হাতে দেয়ার সময় বা যখন যে রঙ এর লাগবে তা পাওয়া যায় না। আবার হুট করে একটা ড্রেস কিনে আনলেন কিন্তু তার সাথে মিলিয়ে নেইলপলিশ নেই। তাই কিভাবে এই সমস্যা সমাধান করবেন আজকে রইল তারই কিছু টিপস। নেইলপলিশ যা যা লাগবে নিজের পছন্দের রঙের আইশ্যাডো, ফানেল, প্লাস্টিক ব্যাগ, ক্লিয়ার নেইলপলিশ, রুটি বেলার বেলুন। কিভাবে বানাবেন প্রথম ধাপ নিজের পছন্দ মত কোন পুরানো অথবা নতুন আইশ্যাডো নিন। শ্যাডো যদি পাউডার হয় তাহলে তা গুঁড়া না করলেও চলবে। সলিড ব্লক হলে একটি প্লাস্টিক ব্যাগে ভরে রুটি বানানোর বেলুন দিয়ে গুঁড়ো করুন। দ্বিতীয় ধাপ যতক্ষণ পর্যন্ত ফাইন পাউডার না হয় ততক্ষণ গুঁড়া করতেই থাকুন। কোন রকম ছোট টুকরা বা গুঁড়া গুঁড়া যেন

আইশ্যাডো দিয়ে নতুন নতুন নেইলপলিশ বানাতে চান?2020-05-06T12:05:16+06:00

করোনা ভাইরাস কি শুধু জামা কাপড়েই আর হাতে আটকায়?

করোনা ভাইরাস কি শুধু জামা কাপড়েই আর হাতে আটকায়? আমরা সবাই জানি যে,তিন থেকে চার ফুট দূরে থাকলে ভাইরাস গায়ে লাগে না। ছয় ফুট দূরে থাকলে হাঁচি কাশির মাধ্যমে ভাইরাস ছরায় না। শুধু কি এইটুকুই সাবধানতা অবলম্বন করলেই করোনা ভাইরাস থেকে দূরে থাকা যাবে? যাবে না। করোনা ভাইরাস থেকে দূরে থাকতে হলে বা মুক্ত থাকতে হলে লাগবে পরিপূর্ণ সাবধানতা। তাই আমাদের আগে জানতে হবে করোনা ভাইরাস কোন কোন মাধ্যমে ছড়ায়। সারা দেশে এখন লকডাউন চলছে। কিন্তু আমরা কি লকডাউন পুরোপুরি ভাবে মেনে চলি বা চলতে পারি? পারি না। কারন আমাদের কোন না কোন খুব দরকারি কাজের জন্য বাহিরে যেতে হয়। জরুরি ওষুধ পত্র আনার জন্য হলেও বাহিরে যেতে হয়।সব বাজার এক সাথে করা যায় না।

করোনা ভাইরাস কি শুধু জামা কাপড়েই আর হাতে আটকায়?2020-04-26T12:24:00+06:00

পেটের মেদ কমানোর সহজ ও কার্যকরী উপায়

আমরা আদাজল খেয়ে, কোমর বেঁধে নেমে পরি ডায়েট করার জন্য। নিজেকে ফিট করতে, নিজেকে মেদহিন করার জন্য। শুরু করে দেই ব্যায়াম করে মেদহিন পেট পাওয়ার জন্য।খুব দ্রুত মুটিয়ে যাওয়া পেটকে এক নিমিষে শেষ করতে চাই। পড়াশোনা, চাকরি ,সংসার সামলানোর কাজে বেস্ত থাকায় নিজেদের প্রতি খেয়াল করার সময় হয়েও হয়ে উঠে না। পুরনো কাপড় পরতে গেলে বা পছন্দের কাপড় কিনতে গেলে আর পরাও হয় না কিনাও হয় না। কারন ঐ একটাই, মেদযুক্ত বড় পেট। পেট আর আগের মত নেই, তখনি যত বিপদ ঘটে। তখন না পারা যায় হটাত করে পেট কমানো বা পসন্দের ঐ কাপড় পড়া বা কিনা। তখনি নেমে পরি আলাদিনের চেরাগের জাদুর মত নানান কৌশলের মাধ্যমে পেট কমাতে। কিন্তু আমাদের এটা মাথায় রাখতে হবে

পেটের মেদ কমানোর সহজ ও কার্যকরী উপায়2020-04-22T13:26:14+06:00

বেস্ত গৃহিণীদের ফিট থাকার দারুন ও সহজ উপায়

সংসার সামলাতে গিয়ে নিজের যত্ন একেবারেই নেয়া হয়ে উঠে না। তাই ঘরে বসে কিভাবে নিজেকে ফিট রাখা যায় তা নিয়ে শুরু হয় চিন্তা। সারাদিন বাসায় থেকে থেকে গৃহিণীদের ফিট থাকাএবং সুস্থ্য থাকা কঠিনই বটে।কারন রান্নাঘর থেকে শুরু করে বাসার কমবেশি সবকিছুই একজন গৃহিণীকেই সামলাতে হয়। আর তাই সংসার সামলাতে গিয়ে নিজের দিকে খেয়াল রাখা কিংবা নিজেকে ফিট রাখা হয়ে হয়ে করেও হয়ে উঠে না। কিন্তু গৃহিণীরা চাইলেই একটু সময় বের করে ফিট এবং সুস্থ্য থাকার উপায় বের করতে পারবেন। খুব ছোট ছোট উপায় বের করে সহজেই ফিট থাকা যায় যা জেনেও আমাদের অজানা থাকে। আর এই সহজ উপায় হতে পারে কিছু সাধারন জিনিস এর পরিবর্তন , খাদ্যাভাসে একটু পরিবর্তন , ডায়েট প্ল্যান এর মাধ্যমে আপনি

বেস্ত গৃহিণীদের ফিট থাকার দারুন ও সহজ উপায়2020-04-22T00:40:03+06:00

এক টাকায় ৮০ বার হাত জীবাণুমুক্ত করার উপায়

এক টাকায় ৮০ বার হাত জীবাণুমুক্ত করার এমনি উপায় বের করেছেন আইসিডিডিআরবি। চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। যা আস্তে আস্তে সব দেশেই সরাচ্ছে। এবং এটা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে বড় রকমের মহামারির আকার নিচ্ছে। এটার ভ্যাকসিন এখনও বের না হওয়ায় এটা নিয়ে আতঙ্ক দিন দিন বেরেই যাচ্ছে। তাই বেশি বেশি সতর্ক থাকতে বলা হচ্ছে ও নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখতে বলা হচ্ছে। নিয়মিত হাত পরিস্কার রাখতে বলা হচ্ছে। কারন হাতের মাধ্যমেই জিবানু বা ভাইরাস বেশি ছড়িয়ে থাকে। হাতের মাধমেই নাক কান চোখ এর সংস্পর্শ হয়। যার ফলে করোনা হওয়ার আসঙ্কা থাকে। আর তাই ডাক্তার বা বিশেষজ্ঞরা বার বার দূরত্ব বজায় রাখতে বলছেন। হাত সব সময় পরিষ্কার রাখতে বলছেন। হাতে হ্যান্ডগ্লভস পরতে বলছেন।

এক টাকায় ৮০ বার হাত জীবাণুমুক্ত করার উপায়2020-04-18T23:55:18+06:00

টাকা লেনদেনের সময় ভাইরাস মুক্ত থাকার উপায়

চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস অনেক দেশেই ছড়িয়ে পড়েছে। "কভিড-১৯" বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া করোনা ভাইরাস ডিজিজ-২০১৯ এর অফিশিয়াল নাম।বিভিন্ন ভাবে এই ভাইরাস চারিদিকে দিনে দিনে ছড়িয়ে পরছে এবং মহামারিতে রুপ নিচ্ছে। এই ভাইরাস বিভিন্ন ভাবে ছড়িয়ে পড়েছে বিভিন্ন ভাবে, যেমনঃ সংস্পর্শের মাধ্যমে,হাঁচি, কাশি, লালা বা থুতু,হাঁচি, কাশি, লালা বা থুতু, আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার সময়, টাকা লেনদেনের সময় ও আরও অনেক ভাবে। টাকার মাধ্যমে কিভাবে ভাইরাস ছড়ায় ও কিভাবে এর সংক্রমণ এরিয়ে চলবেন তা জানাবো। ব্যাংক নোট বা টাকায় বা মুদ্রায় নানা ধরণের জীবাণুর উপস্থিতি নতুন কিছু নয়। এমনকি ব্যাংক নোটের মাধ্যমে ভাইরাস সংক্রামক নানা রোগ ছড়িয়ে পড়ার কথাও বলেন বিশেষজ্ঞরা।যেমনঃ বাংলাদেশের একদল গবেষক গত বছরের অগাস্ট মাসে বলেছিলেন যে,

টাকা লেনদেনের সময় ভাইরাস মুক্ত থাকার উপায়2020-04-16T23:03:30+06:00

মাস্ক কিভাবে ব্যাবহার করে ভাইরাস ঠেকানো যায়?

মাস্ক পরে কি ভাইরাস ঠেকানো যায়? ভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া বা যেকোনো খবরের জন্য মাস্ক বা মুখোশ পরা কোন মানুষের মুখচ্ছবি হতে পারে সহজ উপায়।বিশ্বের সব দেশেই সংক্রমণ ঠেকানোর জন্য জনপ্রিয় ব্যবস্থা হচ্ছে মাস্ক বা মুখোশ এর ব্যবহার।যা খুব সহজেই ভাইরাস এর সংক্রমণ ঠেকানো না গেলেও লাঘব করা যায়। বিশেষ করে চীনে অর্থাৎ যেখান থেকে শুরু হয়েছে করোনাভাইরাস, সেখানেও মানুষ বায়ু দূষণের হাত থেকে বাঁচতে হরহামেশা নাক আর মুখ ঢাকতে মুখোশ পরে ঘুরে বেড়ায়।ভাইরোলজিস্ট অর্থাৎ যারা ভাইরাস বিশেষজ্ঞ তারা যথেষ্টই সংশয়ে আছেন যে, বায়ুবাহিত ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে এই মাস্ক কতটা কার্যকর সে ব্যাপারে। আসলেই কি মাস্ক পরে ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকানো যায়? তবে ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকানো না গেলেও এর হাত থেকে মুখে সংক্রমণ ঠেকাতে এই মাস্ক

মাস্ক কিভাবে ব্যাবহার করে ভাইরাস ঠেকানো যায়?2020-04-15T21:47:26+06:00

শীতে ত্বকের যত্ন ঘরোয়া টিপস

শীতে ত্বকের যত্ন ঘরোয়া টিপস শীতের আগমন ঘটেছে। এই আগমনে ত্বকের যত্নে সতর্ক থাকতে হবে। ত্বককে সুন্দর, তরতাজা আর উজ্জ্বল রাখতে হলে অতিরিক্ত সূর্যরশ্মি অর্থাৎ অতিবেগুনি রশ্মি এড়িয়ে চলতে হবে। তা না হলে ত্বক বুড়িয়ে যাবে। সে ক্ষেত্রে একটি ছাতা বা টোকাজাতীয় টুপি ব্যবহার করা যেতে পারে। যারা এগুলোকে রুচিসম্মত মনে না করেন তারা যে কোনো একটি উৎকৃষ্ট সানস্ক্রিন লোশন বা ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। প্রশ্ন আসতে পারে, কোন সানস্ক্রিন আপনি ব্যবহার করবেন? এ ক্ষেত্রে প্রথমেই আপনার ত্বকের রং বিবেচনায় আনতে হবে। যে ত্বকের রং যত সাদা, সে ত্বক সূর্যালোকে তত বেশি নাজুক। সেই সঙ্গে শুরু হয়েছে ত্বকের নানাবিধ সমস্যা। তাই এখন থেকেই শুরু হোক ত্বকের বাড়তি যত্ন। এতে শীতের শুষ্কতা কমিয়ে ত্বককে করবে মসৃণ

শীতে ত্বকের যত্ন ঘরোয়া টিপস2019-12-05T18:45:01+06:00

মেহেদি পরার টুকিটাকি কিছু ঝটপট টিপস

মেহেদি ছাড়া ঈদ কল্পনাই করা যায় না। এবার ঈদেও নিশ্চয়ই প্রিয় দু’টি হাত রাঙাবেন মেহেদির রঙে । কিভাবে দিবেন, রঙ গারো হবে কিভাবে আর কত চিন্তা। চলুন জেনে নিই মেহেদি পরার টুকিটাকি কিছু টিপস, যা আপনার ঈদ এ মেহেদি পরতে ও লাগাতে অনেক সাহায্য করবে। কেমন নকশা দিবেনঃ ১। লম্বা হাতার পোশাক লম্বা হাতার পোশাক পরলে কনুই পর্যন্ত মেহেদি না পরাই ভালো।কনুই পর্যন্ত পরলে, মেহেদি ঢাকা পরবে। তাই আপনি যদি ছোট হাতার জামা বা একটু কম লম্বা জামা পরেন, তাহলে কনুই পর্যন্ত মেহেদি লাগাতে পারেন। ২। কালো মেহেদি কালো মেহেদি হাতের তালুতে না দিয়ে ওপরে দিতে পারেন। কালো মেহেদির ক্ষেত্রে জ্যামিতিক নকশাই ভাল। জ্যামিতিক ছাড়াও একটু চেক ধাঁচের, কোনাকুনি নকশাও চাইলে পরতে পারেন। পাশ্চাত্য পোশাকের

মেহেদি পরার টুকিটাকি কিছু ঝটপট টিপস2019-06-04T14:28:42+06:00

৫ মিনিটেই সুস্থ ও সুন্দর থাকার কিছু ঝটপট টিপস

৫ মিনিট সময়টাকে আমরা খুব বেশি গ্রাহ্য করি না। ভাবি, ৫ মিনিটে কিবা হতে পারে? অথচ ঘুমানোর আগে মাত্র ৫ মিনিট ব্যয়েই আপনি থাকতে পারবেন সুস্থ ও সুন্দর। জীবনে অতিবাহিত করা প্রতিটা সময়ই মূল্যবান। তাই সময়কে সঠিক ভাবে কাজে লাগাতে হবে। কীভাবে ৫ মিনিটেই থাকতে পারবেন সুস্থ ও সুন্দর? জেনে নিন কয়েকটি সহজ উপায়- চুল আঁচড়ান : ঘুমানোর আগে নিয়মিত ২-৫ মিনিট চুল আঁচড়াবেন। এতে মাথার ত্বকে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পাবে এবং মাথার ত্বক সুস্থ থাকবে। এর সাথে সাথে কমে যাবে চুল পড়া।প্রতিদিন নিয়মিত চুল আঁচড়ালে খুসকিসহ চর্মরোগ হবার সম্ভাবনা কমে যায়। তারসাথে প্রতিদিনের এই সামান্য যত্নে আপনার চুল হয়ে উঠবে ঝলমলে ও সুন্দর। গ্রিন টি পান করুন : ঘুমানোর আগে অল্প কিছু সময় ব্যয়

৫ মিনিটেই সুস্থ ও সুন্দর থাকার কিছু ঝটপট টিপস2019-05-25T22:01:39+06:00

রিবন্ডিং করা চুলের সহজ কয়েকটি ঘরোয়া যত্ন

লম্বা, টানটান ঝলমলে চুল কে না চায়। হাল ফ্যাশনে সোজা চুলের কদর তাই খুবই বেশি।বিউটি পার্লারগুলোতে চুলের রিবন্ডিং এর জন্য ভিড় চোখে পরার মতো। তবে রিবন্ডিং চুল দেখতে যেমন আকর্ষনীয় তেমনি এর রক্ষণাবেক্ষনও সমান গুরুত্বপূর্ণ।রিবন্ড করা চুল যত্নের অভাবে ভেঙে যায়, রুক্ষ হয় ও পড়ে যায়। এ জন্য প্রয়োজন অতিরিক্ত যত্নের।  যত্ন করার টিপসঃ ১।শ্যাম্পু করার আগে রাতে নারিকেল তেল বা অলিভ অয়েল চুলে ও স্কাল্পে ম্যাসাজ করে নিন। মোটা দাড়ের চিরুনি দিয়ে কিছুক্ষণ চুল আঁচড়ে নিন। গোসলের আগে গরম পানিতে তোয়ালে চুবিয়ে আধা ঘণ্টা চুল পেঁচিয়ে রাখুন। তারপর শ্যাম্পু করুন। এতে রক্ত সাঞ্চালন বাড়বে ও রুক্ষভাব কমবে। ২।শ্যাম্পু করা সপ্তাহে কমপক্ষে তিনবার শ্যাম্পু করুন। কারণ রিবন্ডিং চুল খোলা রাখায় দ্রুত ময়লা হয়। বেশি শ্যাম্পু

রিবন্ডিং করা চুলের সহজ কয়েকটি ঘরোয়া যত্ন2019-05-24T11:28:08+06:00

মেছতা দূর করার ঘরোয়া উপায়

মেছতা দূর করার ঘরোয়া উপায় মেছতার সমস্যায় ভুগতে দেখা যায় অনেককেই। মেছতা হওয়ার অন্যতম কারণ অপরিচ্ছন্ন ত্বক। ঘরোয়া উপায়ে মেছতা দূর করা ও ত্বক পরিষ্কার করার উপায়- ১। লেবু ত্বককে উজ্জ্বল করতে, ত্বকের কালো দাগ দূর করতে লেবুর জুড়ি নেই। এটি ব্লিচের কাজ করে। লেবুর রসের উচ্চমাত্রার সাইট্রিক এসিড ত্বকের অধিক তেল শোষণ করে ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ থেকে ত্বককে রক্ষা করে। প্যাক তৈরির উপকরণ (ক) তাজা লেবুর রস ১ চা চামচ (খ) টমেটোর রস ১ চা চামচ উপকরণ গুলি এক সাথে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এটি ত্বকে লাগিয়ে হালকাভাবে ম্যাসাজ করুন এবং ১৫ থেকে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এক মাস ব্যাবহার করলে ত্বকের মেচতা দূর হবে। এছাড়া তাজা লেবুর রস ত্বকে লাগিয়ে রাখুন ১৫ থেকে ২০

মেছতা দূর করার ঘরোয়া উপায়2019-07-03T00:06:42+06:00

গরমে রূপচর্চায় সতেজ থাকতে শসার প্যাকের জাদুকরি টিপস

যুগে যুগে রূপচর্চায় ব্যবহৃত হয়ে এসেছে নানা উপকরণ। এর মধ্যে শসা অন্যতম। গরমে কোনও কিছুই ভাল লাগে না করতে। এই গরমে মুখের সমস্যা হলে,জীবন হয়ে ওঠে আরও পেরাময়। তাই সহজেই আপনি আপনার মুখের যত্ন বা হালকা রূপচর্চায় নিজেকে সতেজ রাখতে পারেন শসা এর মাধ্যমে। আসুন জেনে নেই শসার প্যাক তৈরির নিয়মাবলী- কিউকাম্বার প্যাকঃ তৈলাক্ত ত্বক ১। তৈলাক্ত ত্বক নিয়ে সমস্যায় ভোগেন না এমন মানুষ নাই বলাই যায়। যাদের তৈলাক্ত ত্বক তারা প্রথমে ফেসওয়াস দিয়ে মুখ ধুয়ে নিবেন। তারপর শশার রস, আপেল সাইডার ভিনেগার, টমেটোর রস এবং এলভেরা জেল একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগাতে পারেন। এতে করে ত্বকের তৈলাক্ত সমস্যা দূর হবে। ত্বকের রুক্ষভাব দূর ২। একটি শশা ব্লেন্ডারে ভালো মতো ব্লেন্ড করে পেস্ট তৈরী করতে হবে।

গরমে রূপচর্চায় সতেজ থাকতে শসার প্যাকের জাদুকরি টিপস2019-05-19T00:31:18+06:00

স্ট্রেচ মার্ক বা ত্বকের ফাটা দাগ দূর করার ঘরোয়া উপায়

স্ট্রেচ মার্ক বা ত্বকের ফাটা দাগ কম বেশি সবারি আছে। ছেলে মেয়ে উভয়েরি এটা হয়। হটাত করে শরীর এর পরিবরতনের ফলে এটা হয়ে থাকে। এতে করে ঘাবড়াবার কিছু নেই। নারিকেল তেল, অ্যালোভেরা, চিনি আরও অনেক কিছু দিয়েই দূর করা যায় "স্ট্রেচ মার্ক" বা ত্বকের ফাটা দাগ। স্ট্রেচ মার্ক কেন হয়? অতিরিক্ত ওজন বেড়ে যাওয়া কিংবা অতিরিক্ত ওজন থেকে দ্রুত চিকন হওয়া, সন্তান প্রসবের পর, বয়সন্ধিকালে শরীরে ফাটা দাগ দেখা দিতে পারে। ত্বক দ্রুত আকৃতি পরিবর্তন করলে বা সংকুচিত বা প্রসারিত হলে নারী-পুরুষ উভয়েরই এই দাগ হতে পারে। এর পেছনে কোনো রোগের ভূমিকা নেই। ত্বক যখন প্রসারিত হয়, তখন তার "কোলাজেন" দুর্বল হয়ে যায় এবং ত্বকের উপরিভাগে ফেটে যায় বা চেরা দাগ তৈরি হয়।   স্ট্রেচ

স্ট্রেচ মার্ক বা ত্বকের ফাটা দাগ দূর করার ঘরোয়া উপায়2019-05-01T11:41:30+06:00

রুপচর্চায় গ্রীন টির কার্যকরী ও সহজ উপায়

বহুগুণে ভরপুর গ্রিন টি সম্পর্কে কম বেশি সবাই অবগত। পানীয় বা চা হিসেবে এটি সকলের নিত্যদিনের সঙ্গী হয়ে উঠেছে। সুস্থ দেহ, সুন্দর ত্বক ও ওজন কমাতে গ্রিন টি এখন অহরহ ব্যাবহার হয়ে আসছে। কিন্তু গ্রিন টি তৈরির পর সবাই টি ব্যাগটি ফেলে দেই,কিন্তু আপনারা হয়তো জানেন না যে এই ব্যাবহার করা টি ব্যাগটি আপনার কতটা কাজে আসতে পারে। রুপচর্চায় গ্রীন টি ব্যবহার করা গ্রিন টি ব্যাগ না ফেলে এটিকে দারুণ কিছু রূপচর্চার কাজে লাগাতে পারেন। চলুন জানে নেয়া যাক, সহজ কিছু কার্যকরী উপায়। ব্রণের সমস্যা সমাধানেঃ গ্রীন টি ব্রণের সমস্যা ট্রিটমেন্টের জন্য খুবই কার্যকরী একটি উপাদান। এটি ত্বকে কোন রকম ইরিটেশন বা ড্রাইনেস তৈরী করা ছাড়াই ব্রণ নির্মূল করে।আপনার আগের ত্বক ফিরিয়ে দেয়। টোনার: গ্রীন

রুপচর্চায় গ্রীন টির কার্যকরী ও সহজ উপায়2019-04-30T11:30:21+06:00

চোখের কাজল ছড়িয়ে পড়া রোধের সহজ টিপস

মেকআপ প্রেমীদের কাছে শীতকাল প্রিয়। মেকআপ যেভাবে রাখেন না কেন ঠিক সেভাবে থাকে। মেকআপ নষ্ট হওয়ার কোন ভয় থাকে না। আর গরমকাল ঘেমে সব মেকআপ নষ্ট হয়ে যায়। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়তে হয় কাজল নিয়ে। চোখে কাজল দিয়েছেন আর সেটা ছড়িয়ে পড়বে না, তা কী করে হয়। নারীদের খুব সাধারণ একটি সমস্যা হল চোখের কাজল ছড়িয়ে পড়া। নিয়মিত চোখে কাজল দেন যারা, তাদের সবার একটি সাধারণ সমস্যা থাকে কাজল ছড়িয়ে যাওয়ার। ওয়াটার প্রুফ কিংবা স্মুজ প্রুফ সহ যতো ধরনের কাজল ব্যবহারকারী আছেন, কমবেশি সবার মুখেই এই কাজল ছড়িয়ে যাবার অভিযোগটি শোনা যায়। আসলে কাজল জিনিসটিই এমন, ২-৪ ঘণ্টায় একটু হলেও তা ছড়ায়। কাজল ছড়িয়ে পড়া রোধ করুন সহজ কিছু কৌশলে। কাজল যেন না

চোখের কাজল ছড়িয়ে পড়া রোধের সহজ টিপস2019-04-25T12:36:43+06:00

সুন্দর ও ঝলমলে চুল পাওয়ার কার্যকরী সহজ উপায়

সুন্দর ত্বক পেতে ত্বকের যত্ন নিতে হয় তেমনি সুস্থ, সুন্দর ও ঝলমলে চুলও পেতে হলে চুল এর পরিচর্যা করা দরকার। সুন্দর ড্রেস আর জুতার সঙ্গে নিজেকে সাজাতে ঝলমলে ও সুন্দর চুলের জুড়ি নেই বললেই হয়।চুল বাধা সুন্দর হলে আপনাকে দেখতে সুন্দর লাগবে অতুলনীয়। সুন্দর চুলের আকাঙ্ক্ষা নেই, এমন মানুষ পাওয়া দুস্কর। তবে বিভিন্ন কারণে চুল মলিন হয়ে পড়তে পারে। চুল নারী সৌন্দর্যের একটি অন্যতম নিদর্শন। সঠিক পরিচর্যা না করলে চুল ধীরে ধীরে তার সৌন্দর্য হারিয়ে ফেলে হয়ে যায় মলিন ও রুক্ষ । তাই সব ঋতুতে চুলের যত্ন নিতে কিছু অত্যাবশ্যকীয় বিষয় মনে রাখা খুবই জরুরী। স্বাস্থ্যজ্জ্বল, সুন্দর ও আকর্ষণীও চুল পেতে চাইলে যা করতে হবে, তা হলো- চুল পরিষ্কার: ১।কমপক্ষে তিন দিন পর পর চুল

সুন্দর ও ঝলমলে চুল পাওয়ার কার্যকরী সহজ উপায়2019-04-24T11:06:11+06:00

রূপচর্চায় চালের গুঁড়ার জাদুকরী ৪ টি ঘরোয়া পদ্ধতি

সময়মতো ত্বকের যত্ন নিলে অনেক সমস্যা থেকেই পরিত্রান পাওয়া যায়। এ জন্য দামী প্রসাধনী কিনতে হবে বা ব্যাবহার করতে হবে তা কিন্তু নয়। আপনার হাতের কাছের জিনিস দিয়েই করতে পারবেন ত্বকের যত্ন।আমাদের শরীরের চামড়ায় প্রতিনিয়ত মৃতকোষ উঠে। মৃতকোষ গুলা উঠে গিয়ে সেখানে নতুন নতুন কোষ জন্মায়। মৃতকোষগুলো উঠে শরীরের উপরিভাগে ময়লার আস্তরণ তৈরি করে এবং এতে ত্বকের মসৃণটা কমে গিয়ে ত্বক খসখসে হয়ে যায়। মৃতকোষ পরিষ্কার করার জন্য স্ক্রাব হল সবচেয়ে ভাল পদ্ধতি। এর জন্য চালের গুড়া ভাল স্ক্রাব এর কাজ করে। রূপচর্চায় চালের গুঁড়া ১। চালের গুড়া ও দুধ এর মাস্কঃ চালের গুড়া =( ২ টেবিল চামচ) দুধ =(২ চা চামচ ), লেবুর রস =(২ চা চামচ ) পরিমান মতো পানি মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি

রূপচর্চায় চালের গুঁড়ার জাদুকরী ৪ টি ঘরোয়া পদ্ধতি2019-04-22T15:01:15+06:00

কপালের আশেপাশে চুল কমে যাওয়া রোধ করার ঘরোয়া উপায়

অনেক মানুষ আছেন যাদের কপাল অনেক বড় থাকে এবং তাঁরা তাঁদের এই বড় কপাল ঢাকার জন্য বিভিন্ন রকম হেয়ার কাট দিয়ে থাকেন। কপালে চুল কম থাকলে কপাল বড় ও চ্যাপ্টা দেখায়। যা মুখের স্বাভাবিক গড়ন বা সুন্দর এর বাঁধা হয়ে দারায়।যদি ঘরোয়া উপায়ে প্রাকৃতিক ভাবেই আবার সেই চুল গজানো যায় বা চুল ফিরে পাওয়া যায় তাহলে অনেক টাকা খরচ করে হেয়ার ট্রিটমেন্ট কেন করবেন বলেন তো? আসুন জেনে নেই কিভাবে ঘরোয়া উপায়ে কপালের চুল গজানো যায়। সাধারণত হরমোনের পরিবর্তন, জেনেটিক কারণ বা পুষ্টির অভাবে চুল পড়ার সমস্যা হয় । চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় একে বলে অ্যালোপেসিয়া । কপালের সামনের দিক থেকে চুল ওঠা শুরু করে আস্তে আস্তে পেছনের দিকে যেতে শুরু করে এবং একসময় মাথায় টাক

কপালের আশেপাশে চুল কমে যাওয়া রোধ করার ঘরোয়া উপায়2019-04-21T17:51:09+06:00